• July 3, 2022

নীতিন সিংঘানিয়ার সাহায্যেই উচ্চশিক্ষার আকাশে উড়ান দিতে চলেছে মালদার ভারতী

 নীতিন সিংঘানিয়ার সাহায্যেই উচ্চশিক্ষার আকাশে উড়ান দিতে চলেছে মালদার ভারতী

আসমান ডেস্ক :মালদার জেলাশাসক নীতিন সিংঘানিয়া।WBCS এর জনক বললেও ভুল হবে না। কেননা তাঁর লেখা বই পড়েই প্রিলিম উত্তীর্ণ হন পরীক্ষার্থীরা। সেক্ষেত্রে WBCS পরীক্ষায় তাঁর ভূমিকা অনস্বীকার্য।এবার তিনি এক নয়া ভূমিকায়। অভিভাবকই হলেন এক মেধাবী আদিবাসী ছাত্রীর।উচ্চমাধ্যমিকের মেধাবী আদিবাসী ছাত্রী ভারতী মুর্মু। কিন্তু অর্থের অভাবে ভবিষ্যতের পড়াশোনা প্রশ্নের মুখে দাঁড়িয়েছিল। সেই সময় তাঁর পাশে দাঁড়ালেন নীতিন সিংঘানিয়া। উচ্চশিক্ষার দায়িত্ব নিলেন মালদার জেলাশাসক।আপাতত, নীতিন সিংঘানিয়ার সাহায্যেই উচ্চশিক্ষার আকাশে উড়ান দিতে চলেছে মালদার ভারতী মুর্মু।

emeAcademy-BBA
StartupPedia

হরিশ্চন্দ্রপুর থানার দৌলতপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বরোল গ্রামের ছাত্রী ভারতী মুর্মু এবারের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় ৪৭৫ নম্বর পেয়েছে।তার বাবা বিনয় মুর্মু পেশায় দিনমজুর। বিনয়বাবুর পরিবারে তিন ছেলেমেয়ে এবং স্ত্রী রয়েছে।মালদার তৃণমূল পরিচালিত আদিবাসী সেলের নেতা চুনিয়া মুর্মু বলেন, গত সপ্তাহে হরিশ্চন্দ্রপুরের আদিবাসী এলাকায় জেলাশাসক নীতিন সিংঘানিয়া গিয়েছিলেন। সেখানকার সাধারণ মানুষের সঙ্গে দুয়ারে সরকার প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া নিয়ে আলোচনা করেছিলেন। সেই সময় জেলাশাসক জানতে পারেন আদিবাসী গ্রামে দুঃস্থ পরিবারের মেয়ে ভারতী মুর্মুর উচ্চমাধ্যমিকে অসাধারণ সাফল্যের কথা।

emeAcademy-BHM

এরপরেই তিনি ভারতীর দিকে বাড়িয়ে দেন সাহায্যের হাত।জেলাশাসকের সহযোগিতা পেতেই ভবিষ্যতে কৃতি ওই ছাত্রী আইএএস নিয়ে পড়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন।ভারতীর স্বপ্নকে সাধুবাদ জানিয়েছেন নীতিন সিংঘানিয়া নিজেও। মেয়েটির পাশে থাকতে পেরে খুশি তিনি। মালদার জেলা শাসকের এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে গোটা আদিবাসী সমাজ।

Hospitech

editor

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Related post

Shares